1. bangladeshkhobor24bk@gmail.com : bangladesh khobor : বাংলাদেশ খবর
October 1, 2022, 9:15 pm
ব্রেকিং নিউজ
নোয়াখালীতে ঝড়ে লণ্ডভণ্ড দুর্গাপূজার মণ্ডপ কাজের অর্ডার না থাকায় সাভার ও আশুলিয়ায় ৩ পোশাক কারখানা বন্ধ গোমস্তাপুরে আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস পালিত পৌরসভার পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আককাস আলী সাভারে পঞ্চাশ বছর বয়সী এক নারী গণধর্ষণের শিকার বিরামপুরে “দৈনিক ডেল্টা টাইমস” পত্রিকার ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন একতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা র‌্যাব মহাপরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন খুরশীদ হোসেন সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রেখে স্বপ্নের দেশ গড়ে তুলতে হবে : প্রধানমন্ত্রী রংপুরে জিনের সরদার গ্রেফতার রহনপুর রেলওয়ে বন্দর পরিদর্শনে করলেন রেলমন্ত্রণালয়ের সচিব হুমায়ুন কবির শেহজাদ খান আমার এবং শাকিব খানের সন্তান: বুবলী ইডেনে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টা মামলা কেন ভাত খাওয়ার পর ঘুম পায়? চোখ ওঠার সমস্যায় কখন যাবেন ডাক্তারের কাছে? তদন্তে গাফিলতি: এসআই বিভাসের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থার নির্দেশ বিদায়ী আইজিপি ড. বেনজীরের নিরাপত্তায় দেহরক্ষী দেওয়ার নির্দেশ যানজট এড়াতে বেঙ্গালুরুতে চালু হচ্ছে হেলিকপ্টার মালদ্বীপে শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন ঢাবিতে হামলার প্রতিবাদে ছাত্রদলের সমাবেশ, বন্ধ যান চলাচল

টানেলের কথা উঠলে মহিউদ্দিন চৌধুরীর কথা মনে পড়ে প্রধানমন্ত্রীর

তহিদুল ইসলাম রাসেল, চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধানঃ
  • আপডেটের সময় : Thursday, March 17, 2022,
  • 6 বার পড়েছেন

আগামী অক্টোবরেই উদ্বোধন হতে যাওয়া এই বঙ্গবন্ধু টানেলটির নির্মাণের ‘কারিগর’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হলেও এর স্বপ্নদ্রষ্টা কিন্তু চট্টগ্রামের প্রয়াত মেয়র চট্টলবীর এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী! এই তথ্য একবার নয় দুই দুই বার জানিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই।

বুধবার (১৬ মার্চ) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার চট্টগ্রাম ওয়াসার মেগা প্রকল্প ‘শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার-২’এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একথা বলেন।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চট্টগ্রাম কর্ণফুলী নদীর নিচে টানেল। এ টানেলের কথা মনে উঠলে অবশ্যই আমাদের সাবেক মেয়র এবং আওয়ামী লীগের যিনি মহানগরের সেক্রেটারি ছিলেন তারপর প্রেসিডেন্ট ছিলেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। তার কথা খুব মনে পড়ে। কারণ তিনি সবসময় একটা টানেল নির্মাণ হউক; সেটা তিনি চেয়েছিলেন। তার একটা দাবিও ছিল। কিন্তু আজকে সেই টানেলের কাজ প্রায় সমাপ্তির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। দুর্ভাগ্য হচ্ছে তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। এবং যতগুলো সিটি করপোরেশন করা হয়েছে এরমধ্যে একমাত্র চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মহিউদ্দিন চৌধুরীর আমলে ছিল অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী। তখন প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে যে আর্থিকভাবে, সম্পূর্ণভাবে স্বাবলম্বীতা অর্জন করেছিল এ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন।’

টানেল নিয়ে মহিউদ্দীন চৌধুরীর কথা স্মরণ শুধু এবার নয় এরআগেও ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি সকালে পতেঙ্গায় বঙ্গবন্ধু টানেল ও এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন পরবর্তী জনসভায়ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই কথা বলেছিলেন।

তিনি ওই সময়ে বলেছিলেন, ‘মহিউদ্দীন চৌধুরী বলতেন কর্ণফুলী নদীর উপর ঘন ঘন ব্রিজ নির্মাণ করলে নদীর ক্ষতি হতে পারে। পলি জমে নদী ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। টানেল নির্মাণের জন্য তিনি আন্দোলনও করেছিলেন। আজ তিনি আমাদের মাঝে নেই, তিনি বেঁচে থাকলে সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন। বিভিন্ন আন্দোলন, সংগ্রামে ও মুক্তিযুদ্ধে তাঁর অবদান জাতি চিরদিন শ্রদ্ধার সাথে মনে রাখবে।’

শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার-২ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু চিটাগাং বে ভিউতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান, চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকোশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ।

চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সরকারের তৃতীয় বর্ষপূতি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেছিন, ‘২০২২ সাল হবে বাংলাদেশের জন্য অবকাঠামো উন্নয়নের এক মাইলফলক বছর। আগামী অক্টোবর মাসে চট্টগ্রামে কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে চালু হবে দেশের প্রথম টানেল।’

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, এই টানেল নির্মাণকে কেন্দ্র করে চীনের সাংহাই সিটির মতো বন্দর নগরী চট্টগ্রামে গড়ে উঠছে ‘ওয়ান সিটি টু টাউন’। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণকাজ সম্পন্ন হলেই চট্টগ্রাম মহানগরীর পাশাপাশি নদীর অপর তীরে আনোয়ারা-কর্ণফুলী এলাকায় গড়ে উঠবে আরও একটি নতুন শহর। নতুন এই শহরের অবকাঠামো একের পর এক নির্মিত হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু টানেল প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, টানেলকে ঘিরে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে নতুন অর্থনৈতিক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হতে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি এই অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূচিত হবে। ৩ দশমিক ৪০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের মূল টানেলের সঙ্গে পতেঙ্গা এবং আনোয়ারা প্রান্তে ৫ দশমিক ৩৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক নির্মিত হচ্ছে। সংযোগ সড়ক ও টানেলের ভেতরের সড়ক হবে সর্বমোট ৪ লেনের। এর মধ্যে ওয়ান ওয়ে একটি টানেলে সড়ক থাকবে দুই লেনের।

একটি টিউবের সড়ক দিয়ে আনোয়ারা থেকে পতেঙ্গা অভিমুখী এবং অপর টিউব দিয়ে পতেঙ্গা থেকে আনোয়ারা অভিমুখী যানবাহন চলাচল করবে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে প্রতিটি টিউব চওড়া ১০ দশমিক ৮ মিটার বা ৩৫ ফুট এবং উচ্চতা ৪ দশমিক ৮ মিটার বা প্রায় ১৬ ফুট। একটি টিউব থেকে অপর টিউবের পাশাপাশি দূরত্ব প্রায় ১২ মিটার। টানেলের প্রস্ত ৭০০ মিটার। এবং দৈর্ঘ্য তিন হাজার ৪০০ মিটার।

আমাদের ওয়েবসাইট >বাংলাদেশ খবর
আমাদের ইউটিউব > 24News tv
আমাদের ফেসবুক পেজ > বাংলাদেশ খবর
আমাদের টুইটার > @b_khobor

Google Ads

এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

ক্যালেন্ডার

October 2022
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  
শ্যামপুর-মডেল-টাউন।
https://www.facebook.com/bergerbd/

© All rights reserved ©2021 -bangladeshkhobor.net.All rights reserved by the publisher.

       
Desing BY Mutasim Billa